খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্বাধীন চলচ্চিত্র উৎসবের অনলাইন পর্বের পরিসমাপ্তি

“খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্বাধীন চলচ্চিত্র উৎসব ২০২০-২১” এর প্রদর্শনী পর্ব এই আগস্ট মাসের ছয় এবং সাত তারিখ অনলাইনে অনুষ্ঠিত হইয়েছে। এই অনলাইন প্রদর্শনী পর্বে দেশ-বিদেশের খ্যাতনামা চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্বগণ বিভিন্ন আলোচনা, চলচ্চিত্র কর্মশালা এবং চলচ্চিত্র প্রদর্শনী সহ  বিভিন্ন আয়োজন সংযুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া এই প্রদর্শনীকে কেন্দ্র করে সপ্তাহব্যাপি কার্যক্রম সংগঠিত হয়েছে যাতে আছে আলোচনা সভা, ভার্চুয়াল কর্মশালা এবং অনলাইনে চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর ব্যবস্থা। এ বিষয়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বিষয়ক পরিচালক অধ্যাপক শরীফ হাসান লিমন জানান, করোনার প্রদুর্ভাব কাটিয়ে না ওঠায় এই উৎসবকে অনলাইনে ওয়েবসাইট এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিলো। অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবার ফলে অনেক নতুন সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়ে যা আয়োজনেই পরিলক্ষিত হচ্ছে। 

এই উৎসবটি খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চলচ্চিত্র আন্দোলন “৩৫ মি. মি.” এর আয়োজনে এবং ছাত্র বিষয়ক পরিচালকের কার্যলয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উল্লেখ করা যায় যে, এই উৎসবে দেশ-বিদেশের প্রায় ৪২ টি বিশ্ববিদ্য়ালয় যোগ দেয় এবং প্রায় শতাধিক চলচ্চিত্র উৎসবে অংশগ্রহনের জন্য আবেদন করে। আবেদনকৃত চলচ্চিত্র থেকে চল্লিশটি চলচ্চিত্র কে মুল উৎসবের জন্য বাছাই করা হয়। উৎসবের প্রতিযোগীতা পর্বে বিচারক হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করেন চলচ্চিত্র নির্মাতা নুরুল আলম আতিক, অনম বিশ্বাস, পিপলু আর খান এবং বিশিষ্ট চিত্রগ্রাহক  কামরুল হাসান খসরু।  ২৫জুলাই থেকে শুরু হওয়া এই আনুষ্ঠানিকতার  গোলটেবিল আলোচনার বিশেষ দুই পর্বের কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

প্রথম পর্বে শিক্ষার্থীভিত্তিক চলচ্চিত্র আন্দোলন নিয়ে আলোচনা করেন ইউএল্যাব, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এবং বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের চলচ্চিত্র আন্দোলনের প্রতিনিধিরা। এর দ্বিতীয় পর্বে শিক্ষার্থী অনুদানে নির্মিত “মেরুদ্বন্দ্ব” চলচ্চিত্রের ডিরেক্টর, সহ পরিচালক এবং প্রোডাকশন ডিজাইনার উপস্থিত ছিলেন। তারা “মেরুদ্বন্দ্ব” তৈরির পিছনে পুরো গল্পটা তুলে ধরেন। মুলপর্বের আলোচনায় যোগ দিয়েছিলেন প্রখ্যাত চলচ্চিত্র সাংবাদিক পানোস কোজাথানাসিস, শব্দশিল্পী হরিকুমার পিল্লাই, প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা গৌতম ঘোষ, অনম বিশ্বাস এবং জাহিদুর রহিম অঞ্জন প্রমুখ। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার বিজয়ী চিত্রগ্রাহন সুমন সরকার এবং স্বাধীন চলচ্চিত্র নির্মাতা রাজিবুল হোসেন পৃথক দুটি চলচ্চিত্র কর্মশালা পরিচালনা করেন। সে সাথে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চলচ্চিত্র আন্দোলন “৩৫ মি. মি.” এর ওয়েবসাইটের মাধ্যমে উৎসবের নির্বাচিত চলচ্চিত্রগুলোর প্রদর্শনীর সমাপনীর মাধ্যমে   খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্বাধীন চলচ্চিত্র উৎসব  অনলাইন পর্বের পরিসমাপ্তি ঘটে। 

Share With

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on reddit
Share on whatsapp
Share on telegram

Leave a Comment

Your email address will not be published.